লিংকড ইন ও ক্যারিয়ার

 

লিংকড ইন হলো বর্তমান বিশ্বের একমাত্র ভেজাল মুক্ত ক্যারিয়ার এবং প্রফেশনাল নেটওয়ার্ক। ফেসবুকে যেমন আমি ওমক তমক এটা প্রকাশ পায়, লিংকড ইন এ প্রকাশ পায় আপনি কোন কাজের যোগ্য, কোন স্কিল আছে , কোন কোম্পানিতে কাজ করেছেন, কোথায় ট্রেনিং করেছেন। কি স্কিল ডেভেলপ করেছেন। আপনি সত্যি ডেভেলপ করেছেন কিনা ইত্যাদি।

আমার ব্যক্তিগত ধারনা আজ থেকে ৫ বা ৬ বছর পর লিংকড ইন আমাদের উপমহাদেশের সব থেকে ভালো জব পোর্টালের ভুমিকা পালন করবে। যাক আমি পয়েন্ট আকারে কিছু কথা লিখি যাতে ব্যাপারটা স্পষ্ট হয়।

১। লিংকড ইন প্রোফেশনাল নেটওয়ার্ক তাই দৈনন্দিন কর্পোরেট বা অফিস লেভেলের চাওয়া,, কর্মকান্ড কিংবা ট্রেন্ড সম্পর্কে জানতে পারবেন।

২। লিংকড ইন আপনাকে কর্পোরেট বিহাভিয়ার শেখাবে যা একটা অফিসে জয়েন করলে আপনার ইতস্ততাকে কাটিয়ে দিবে।

৩। বর্তমান জব মার্রকেটের চাহিদা সম্পর্কে স্পষ্ট ধারনা দিবে। যেমন কোন ইন্ড্রাস্ট্রির অধিক লোকবল দরকার হয়।

৪। লিংকড ইন লার্নিং এ অনেক কিছু শেখা যায় যা ইউডিমি টাইপ এরর যেখানে সব প্রফেসনাল রা বাস্তব জীবনের ভিত্তিতে শিখিয়ে থাকেন।

৫। লিংকড ইন আপনাকে কর্পোরেট কানেকশন বিল্ড আপ করতে সহায়তা করবে। যেমন আপনি চাইলে বেক্সিমকোর উপর আপনার কোন এক্সিপেরিমেন্ট জমা দিতে পারবেন। এছাড়া আরো অনেক ভাবে তাদের নজরে আসতে পারবেন।

৬। লিংকড ইন এ আপনি আপনার কাজের জন্য সাক্ষ্য নিতে পারবেন যা বর্তমান বিশ্বের সব থেকে উন্নত পোর্টফলিও হিসেবে কাজ করে।

লিংকড ইন প্রোফাইল কেন দরকারী?

লিংকডইন প্রোফাইল আপনার পেশাদারিত্ব প্রকাশ করে। আপনার এক্টিভিটি, কাজ, গবেষণা এবং প্রকাশনার উপর ভিত্তি করে আপনার লিংকড ইন প্রোফাইল আপনার পেশাদারিত্বের সূচিপত্র হিসেবে কাজ করে। একজন এম্পলয়ার কিংবা যে কোম কোম্পানি বা কোন ব্যক্তি যখন একটি নিদৃষ্ট কাজের জন্য কাউকে খুজেন তখন আপনার একটি উর্বর লিংকডইন প্রোফাইল আপনাকে তাদের হাতের কাছে নিয়ে যায়। তাই নিজের লিংকড ইন প্রোফাইল তৈরির ব্যাপারে সচেতন হোন। লজ্জা না পেয়ে যারা অভিজ্ঞ তাদের থেকে সাহায্য নিন।

প্রোফাইল খোলার আগে নজর দিন আপনি কি চাকুরী পাবার জন্য খুলছেন নাকি শেখার জন্য কিংবা নেটওয়ার্কিং এর জন্য। এই তিন ধরনের সুবিধাই আপনি লিংকডইন থেকে পাবেন।

সুবিধা এবং কিভাবে তা অর্জন করতে হবে তা নিয়ে পরের পোস্ট এ লিখব।

আপাতত প্রোফাইল খোলার সময় কি কি মনে রাখবেনঃ

১. নাম সুন্দর করে ( Juel Rana) লিখুন। ছোট বা বড় হাতের করে লিখবেন না।

২. আপনি কি করেন এবং কি করতে চান এটাই সংক্ষেপে বায়োতে প্রকাশ করুন। আপনি গতানুতিক ওমক তমক করতে চাই লিখে প্রোফাইল হালকা করবেন না।

২. শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নাম ও শিক্ষা বর্নণা ক্লিয়ার করে লিখুন ( ডিইউ, আর ইউ এভাবে লিখবেন না।

৩. পূর্ব কাজের অভিজ্ঞতা শেয়ার করুন। সেটা যাই হোক তা আপনার এফোর্ট কে প্রকাশ করে। যেমন আমি চায়ের দোকান চালিয়েছিলাম এত দিন সেখানে আমি এই এই এই প্রকার চা বানাইতাম ( উদাহরণ)।

৪. জীবনে লেখা লেখির চেস্ট করে থাকলে তা প্রকাশ করুন। লেখা লেখি থাকলে বোঝা যাবে আপনি অলস নন।

৫. যে ঠিকানা ব্যবহার করবেন তা একেবারে যাচাই করে সুন্দর করে করুন। বাসা চেঞ্জ হবার সময় তা আপডেট করুন।

৬. মোবাইল বা ইমেইল নম্বর প্রকাশ করুন, প্রফেশনাল ইমেইল দিতে পারলে সব থেকে ভালো।

৭. ওমক মিউজিক, তমক মুভি শেয়ার করবেন না। মনে রাখবেন এটা আপনার আর আপনার ভবিষ্যৎ বসের মাঝের টেবিল। এইই টেবিল এ গান বাজানো বেয়াদপি। কিন্তু আপনি যদি মিডিয়া ক্যারিয়ারের হন তবে নিজের কাজ শেয়ার করুন।

৮. বাংলা এবং ইংরেজি উভয় ভাষার যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত করুন।

৯. কানেকশন রিকুয়েস্ট করার সময় ভদ্রতা মুলক ম্যাসেজ প্রদান করুন।

১০। প্রোফাইল এ আপনার স্কিল যোগ করুন।বিভিন্ন ট্রেনিং ও পরিক্ষা বা প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহনের ইতিহাস থাকলে তা যোগ করুন।

লিংকডইন প্রোফাইল বানিয়ে দেবার অনেক ধাপ্পাবাজ আছে বাংলাদেশে তাদলিংকড ইন এর উপকার সম্পর্কে অনেকেই জিজ্ঞাসা করছেন। এ বিষয়টা সহজ করেইই বলি।

১. মাঝে মাঝে আপনারা কিছু পোস্ট ভাইরাল করেন তার মধ্যে অন্যতম ভারতের অমক তমুক কোম্পানির সিইও হয়ে গেছে। আমরা কি করছি। আরে ভাই ওরা যে খুব বেশি শিখে ( মানে আমাদের থেকে অনেক বেশি শিক্ষা ক্ষেত্র আছে তা নয়)। তাদের মুল অগ্রগতি হচ্ছে তারা ফেসবুক এ এসে বেকারত্বকে ভাইরাল না করে স্কিল ডেভেলপ করে তা লিংকডইন বা ডিরেক্ট কমিউনিকেশন মেথড এ সোকেজ করে। ( ফেসবুক থেকে আপনাকে কেউ কাজের জন্য রিকুয়েস্ট করবে এমন সম্ভাবন ১০% হলে, লিংকডইন এ তার সম্ভাবনা ৯০%)

এখন ভাবছেন সেটা কিভাবে সম্ভব?

ধরুন নিউজিল্যান্ড এর একটি কোম্পানি বাংলাদেশে তার প্রতিনিধি খুজছে, তারা সর্বপ্রথম যে কাজটি করবে তা হলো ঐ নির্দিষ্ট স্কিলের বা কাজের উপর বেইজ করে সার্চ করবে। আপনার প্রোফাইল যদি সমৃদ্ধ হয় তবে তা তাদের সামনে ভেসে উঠবে এবং তারা আপনার সাথে যোগাযোগ করবে।

লোকাল মার্কেট এ কি দরকার?

হেড হান্টিং এর এই যুগে বাংলাদেশের মার্কেটে লিংকডইনে কর্মী খোজা শুরু হয়েছে অলরেডি। আমার দেখা সর্বশেষ তথ্যমতে জিপি, ইউনিলিভার, বেংগল, স্কয়ার, প্রান ইত্যাদি কোম্পানির প্রায় ৩০% ম্যানেজার বা তার উপরের লেভেলের কর্মকর্তারা লিংকড ইন থেকে বিলোং করে।

আপনাকে যাচাই করিঃ

১. আপনি এম বি এ/ এম এ / এম এস সি শেষ করেছেন ( তালি হবে)

২. কখনো প্রান কোম্পানি/জিপি বা আপনার পছন্দের কোন কোম্পানি ম্যানেজমেন্ট কে বলেছেন আমি এম বি এ করেছি আর এই এইই স্কিল আছে?

৩. আপনার কি মনে হয় আপনার দেয়া সিভি ঐ কর্মকর্তা পর্যন্ত পৌছিয়েছে?

৪. আপনার কি মনে হয় যে আপনার দায়িত্ব বিডিজবস এ এপ্লাই বাটন পর্যন্ত সীমাবদ্ধ?

৫. সরকারী চাকুরীর দোহায় দিয়ে কি খুব মজা পান ( প্রায় সকলেই পায়)

ব্যাপারটা আরো বড় করা যেত কিন্তু আমার বাস প্রায় গন্তব্যস্থান এ চলে এসেছে।

তাই এক কথায় শেষ করিঃ লিংকডইন আপনাকে সরাসরি আপনার চাকুরী বা ব্যবসা বা প্রজেক্ট প্রদান কারির কাছে পোউছে দেয়। আর আপনি যদি সেই রিসোর্স পার্সন হন তবে, আপনি কখনোই খালি হাতে ফিরবেন না।

৫০ হাজার টাকা এপ্লিকেশন করতে আর সিভি বানাইতে খরচ না করে, স্কিল ডেভেলপ করুন এবং লিংকড ইন কে সমৃদ্ধ করুন।ের ব্লক মারুন।

Author

Write A Comment