বিজনেস -কৌশল ।। নতুন বছর

বিজনেস-কৌশল,নতুন বছরে পিছিয়ে পড়ছেন না তো?প্রতিনিয়ত পরিবর্তনশীল ডিজিটাল দুনিয়ায় যারা নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করার মনপ্রাণ  চেষ্ঠা করছেন,তাদের জন্য সবথেকে বড় চ্যালেঞ্জ হলো পরিবর্তনের সাথে সাথে নিজের বিজনেস স্ট্রাটেজি,ক্যাম্পেইনের ধরণ ও কাস্টমার একিউজিসনের পন্থা উন্নত করা ,আমরা যে সমস্ত প্লাটফর্মগুলো ব্যবহার করি তা প্রতি বছরেই বদলে যাচ্ছে,সেই সাথে বদলে যাচ্ছে আমাদের কাস্টমারের চাহিদা ও অনলাইনে এ্যংগেজমেন্টের ধরণ ।

পাশাপাশি কম্পিটিটরদের ধামাকা ও জায়ান্ট কোম্পানিগুলোর ভূমিকম্প ও ঘূর্নিঝড় আক্রান্ত মাঝারি ই কমার্সগুলো।সবথেকে মারাত্বক হলো দিন দিন মানুষ অনলাইন কেনাকাটার আগ্রহ হারিয়ে ফেলছে ,কিছু অসাধু ব্যবসায়িদের জন্য যাই হোক আমাদের সবার ব্যবসায়ের মূল উদ্দেশ্য হলো সেল বৃদ্ধি করা ,যাতে করে আমরা বেশি মুনাফা অর্জন করতে পারি ।

 

সুতরাং পরিস্থিতি যেই রকম হোক একজন সফল ব্যবসায়ী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হতে হলে ,আমাদের সে অনুযায়ী প্রস্তুতি নিতে হবে ।এখানে আমি চারটি অতিপ্রয়োজনীয় কাজের কথা বলেছি।যেটা প্রতিনিয়ত এবং ঠিকঠাক না করতে পারলে এ বছর আপনি অনেক পিছিয়ে পড়বেন।একটু সময় নিয়ে বিস্তারিত পড়ুন ।

 

উপরের বর্ণিত কাজগুলো আপনাকে করতেই হবে যদি প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে চান কারণ জায়ান্ট কোম্পানিগুলো বৃহৎ পরিকল্পনা ও আগ্রসী মনোভাব নেবে এ বছর।এখন টিপস দেওয়ার চেষ্টা করছি যে গুলো বাস্তবায়ন করলে কিছুওটা হলেও মনোপলি পরিবেশের বাইরে নিজের অসিত্ব প্রকাশ করতে পারবেন ।

Add value to existing product:

ধরুন আপনি অনলাইনে হেয়ার ফাইবার বিক্রয় করেন এ করম প্রোডাক্ট আরো অনেকে বিক্রয় করে বা বড় কোম্পানী গুলো এক্ষেত্রে নানা অফার দিয়েছে ,এখন এটা যেহেতু খুব স্পর্শ কাতর পণ্য সুতরাং চুলের বা ত্বকের কোন ইস্যু,যেমন ধরেন এটার কোন পাশ্বপ্রতিক্রিয়া নেই,এটা USP হিসেবে বার বার আপনার ক্রেতাদের সামনে তুলে ধরুন ,সেল এমনিতে বেড়ে যাবে ।

Unique product intregation:

আপনার সেক্টরে কোন ইউনিক প্রোডাক্ট বা এখনো মার্কেটে ছড়িয়ে পড়েনি ,এমন পণ্য খুজে বের করুন লোকালি বা গ্রামের কোন উৎপাদকের কাছ থেকে এমন পণ্য সংগ্রহ করতে পারেন ।আর যতক্ষন ঘূর্ণিঝড় হবে,আপনি এটাকেই মূল পণ্য হিসেবে প্রচার করুণ ।ক্রেতা আপনার সাইটে এসে প্রয়োজন মত অন্য পণ্য ও কিনবে ।আর এভাবে ধৈর্য্য রাখুন কারণ ঘূর্নিঝড় বেশিক্ষণ স্থায়ী হয় না ।

Partnering :

আপনার সেক্টরের সাথে রিলেটেড বা সাব সেক্টরের সাথে রিলেটেড এমন সমমনা ব্যবসায়ীকে খুজে বের করুন ।এখন আপনাদের যে প্রোডাক্ট আছে তা পরস্পরের যেসব চ্যানেল আছে সেখানে ছড়িয়ে দিন ।এতে করে ক্রেতার পরিসর বাড়বে দুজনেরই ।এক্ষেত্রে পণ্য হতে পারে সাইকেলের এক্সেসরিজ বা মোবাইল এক্সসরিজ ।

কন্টেন্ট মার্কেটিংঃ

বর্তমানে সময়ের সবথেকে কার্যকরী ও হাই কনভার্সন মার্কেটিং হচ্ছে  কন্টেন্ট মার্কেটিং ।আপনার পণ্যের বা ব্রান্ডের নানা দিক পর্যায়ক্রমে ও কৌশলে ছড়িয়ে দিন সম্ভাব্য ক্রেতাদের মাঝে ।কন্টেন্ট অডিও ,ভিডিও ,ট্রেক্সট বা অন্য যেকোন ফরম্যাটেই হতে পারে তবে খেয়াল রাখতে হবে মূল ম্যাসেজটি যেন ক্লিয়ার হয় এবং সব সময় ক্রেতাদের সমস্যা সমাধানের কথা বলতে হবে কন্টেন্টে ,আপনার পণ্য ক্রয়ের কথা বললে হিতে বিপরীত হতে পারে । 

Author

Write A Comment